৭৭৬ দিন পর ‘ফিরোজায়’ খালেদা জিয়া


৭৭৬ দিন পর কারামুক্ত হয়েছে নিজ বাসা ফিরোজায় অবস্থান করছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহর বুধবার (২৫ মার্চ) বিকেল ৫টা ২০ মিনিটের দিকে রাজধানীর গুলশান-১ এর বাসা ফিরোজায় প্রবেশ করে।

এ সময় তাকে ফুলের তোড়া দিয়ে তাকে সাদরে গ্রহণ করেন তার মেজ বোন বেগম সেলিমা ইসলাম, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, বেগম সেলিমা রহমানসহ খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যরা।  খালেদা জিয়ার সঙ্গে ছিলেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেনসহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

এর আগে বুধবার (২৫ মার্চ) বিকেল ৪টা১৫ মিনিটের দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল থেকে তাকে মুক্তি দেয়া হয়।

বিএসএমএমইউ থেকে বের হওয়ার পরপর সেখানে অবস্থান করা নেতাকর্মীরা ‘খালেদা’, ‘খালেদা’, ‘জিয়া, ‘জিয়া’ মুহুর্মুহু স্লোগান ধরেন। স্লোগানে স্লোগানে কম্পিত বিএসএমএমইউ হাসপাতালের সামনের এলাকা।

খালেদা জিয়ার গাড়িবহর গিয়ে শোডাউন করে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদলসহ সহযোগী ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। গাড়িবহরে নেতাকর্মীরা যুক্ত হয়ে বেগম জিয়াকে গুলশানের দিকে নিয়ে অগ্রসর হয়।

নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে খালেদা জিয়ার গাড়িবহর এগিয়ে যাচ্ছিল। গাড়িবহরটি বিকেল ৫টার দিকে কারওয়ান বাজার অতিক্রম করার সময় পুলিশ নেতাকর্মীদের লাঠিচার্জ করে। এতে বেশ কয়েকজন আহত হোন। নেতাকর্মীরা তবুও গাড়িবহরে দিকে গেলে ফার্মগেট এলাকায় আবারও লাঠিচার্জ করে পুলিশ। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এলাকায় গাড়িবহরের সাথে থাকা মোটরসাইকেল বহরেও বাধা দেয়া হয়।

এর আগে খালেদা জিয়ার মুক্তির খবরের পরপরই নেতাকর্মীরা শাহবাগ এলাকায় জড়ো হতে থাকেন। বুধবার (২৫ মার্চ) দুপুরের দিকে  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল আশপাশে অবস্থান নেন নেতাকর্মীরা। দীর্ঘ দুই বছর পর নেতাকর্মী নেত্রীকে একনজর দেখার জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে ছিলেন।